ঢাকা ১১:৩৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo ঈদের আনন্দে প্রবাসীরা কতটুকু হাসি খুশি থাকে Logo ঈদুল আযাহার নামাজ আদায় চকশৈল্যা বাজার ঈদগাহ মাঠে। Logo বিরামপুরে সৌদির সাথে মিল রেখে ১৫টি গ্রামের পরিবারে ঈদুল আজহা উদযাপন Logo শেরপুরে পবিত্র ঈদুল আযহার উপলক্ষে শুভেচ্ছা ও আর্থিক সহায়তা দিলেন ছানুয়ার হোসেন ছানু এমপি Logo “দৈনিক বর্তমান সংবাদের নির্বাহী সম্পাদক ও এশিয়ান টিভি ভালুকা প্রতিনিধি”মো:কামরুল ইসলাম “পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা Logo “প্রেসক্লাব ভালুকা “সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম”পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা Logo “দৈনিক বর্তমান সংবাদের সহ সম্পাদক “সেরাজুর ইসলাম সিরাজ “পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা Logo দৈনিক বর্তমান সংবাদের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক “সুমন মিয়া “পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা Logo “দৈনিক বর্তমান সংবাদের প্রকাশক ও সম্পাদক”মামুন হাসান বিএ”পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা Logo ঈদ আগাম বুকিং কম চায়ের রাজ্য শ্রীমঙ্গলে

ট্রানজেণ্ডার ও সমকামিতা বাংলাদেশের বৈধ না স্লোগানে ঢাকা কলেজে প্রতিবাদ সমাবেশ ও রেলি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মেহেদী হাসান, ক্যাম্পাস প্রতিনিধি (ঢাকা কলেজ)
  • আপডেট সময় : ০৫:২৫:৩৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২৪ ৮২ বার পড়া হয়েছে

মেহেদী হাসান, ক্যাম্পাস প্রতিনিধি (ঢাকা কলেজ)
আজ ২৫শে জানুয়ারি রোজ বৃহস্পতিবার ঐতিহ্যবাহী ঢাকা কলেজে ট্রানজেন্টার ও সমকামিতা প্রতিবাদে সমাবেশ ও রেলি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

দীর্ঘ কয়েকদিন আগে আলোচিত ও সমালোচিত ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয়ের খণ্ডকালীন শিক্ষক জনাব আসিফ মাহাতাব জাতীয় শিক্ষাক্রম সমাবেশে এক বক্তব্যে ষষ্ঠ শ্রেণীর ইতিহাস ও সমাজবিজ্ঞান বিষয়ে কয়েকটি পেজ ছিড়ে ফেলে। এতে তিনি প্রতিবাদ করে বলেন উক্ত পাঠ্যক্রমে শরীফ থেকে শরীফা কিভাবে হয়। তিনি বলেন তৃতীয় লিঙ্গ (হিজরা) আল্লাহ তায়ালার সৃষ্টি। আর ট্রানজেন্ডার কোন কোন সৃষ্টি নয় এটা মনে মনে ভাবলেই হয়ে যায় এমন স্লোগান।

এ সকল বিষয় নিয়ে সারাদেশে সমাবেশে ঝড় ওঠে এরই প্রেক্ষিতে ঢাকা কলেজ ছাত্রসমাজ ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয়ের খণ্ডকালীন শিক্ষক জনাব আসিফ মাহাতাব কে সমর্থন করে উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের সাথে একাত্ম পোষণ করেন ঢাকা কলেজ ছাত্রসমাজ।

ঢাকা কলেজ ছাত্র সমাজ কয়েকটি দাবি তুলে ধরেন(১) ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য তারা চান বাস্তবমুখী শিক্ষা (২) শরীফ থেকে শরিফা পাঠ্যক্রম থেকে তুলে দিতে হবে (৩) পাঠ্যক্রমে কেন ভুল তথ্য দিচ্ছে তা শিক্ষা শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে জবাব দিতে হবে (৪) ট্রানজেন্ডা দিয়ে কেন সমাজে বিশৃঙ্খলা হলো তার জবাব দিতে হবে।

তারা ক্যাম্পাসের মূল ফটক থেকে প্রতিবাদ রেলি শুরু করে সাইন্সল্যাব সিটি কলেজ হয় বলাকা সিনেমা হল হয়ে নাঈমের গলিতে এসে বন্ধ করেন।

সমাবেশ অনুষ্ঠানে তারা বলেন ষষ্ঠ শ্রেণীর ইতিহাস ও সমাজবিজ্ঞান পাঠ্যক্রমে লেখা- যে আমি যদি মনে মনে ভাবি ছেলে হলে মেয়ে হয়ে যাব ;আর মেয়ে হলে ছেলে হয়ে যাব। এরকম একটি সিদ্ধান্ত কখনো ছাত্র সমাজ মেনে নিতে পারে না। এ সময় এক শিক্ষার্থী বলেন ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলন থেকে শুরু করে এই ঢাকা কলেজের ছাত্রসমাজ প্রতিরোধ করেছিল। তারই প্রেক্ষিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় পাঠ্যক্রম থেকে এ সকল মন্তব্য ও বিশৃঙ্খলার বিষয়গুলো অবিলম্বে তুলে নিতে হবে।
তারা আরো বলেন শিক্ষা মন্ত্রণালয় কে অতি দ্রুত এসকল বিষয় পাঠ্যক্রম থেকে বাতিল করতে হবে

তারা বলেন হিন্দু -মুসলিম আমাদের মধ্যে কোন ভেদাভেদ নেই কিন্তু কোন ধর্মেই সমকামিতা ও ট্রানজেন্ডার সমর্থন করেনা। তারা বলেন আসিফ স্যার কে পুনরায় তার চাকরিতে বহাল করতে হবে এবং শিক্ষার্থীদের সকল দাবি মেনে নিতে হবে।

পরিশেষে ঢাকা কলেজের ছাত্র সমাজের শিক্ষার্থীরা দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে আসিফ স্যার ও ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়ানোর আহবান করেন।

ট্যাগস :
Translate »

ট্রানজেণ্ডার ও সমকামিতা বাংলাদেশের বৈধ না স্লোগানে ঢাকা কলেজে প্রতিবাদ সমাবেশ ও রেলি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আপডেট সময় : ০৫:২৫:৩৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২৪

মেহেদী হাসান, ক্যাম্পাস প্রতিনিধি (ঢাকা কলেজ)
আজ ২৫শে জানুয়ারি রোজ বৃহস্পতিবার ঐতিহ্যবাহী ঢাকা কলেজে ট্রানজেন্টার ও সমকামিতা প্রতিবাদে সমাবেশ ও রেলি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

দীর্ঘ কয়েকদিন আগে আলোচিত ও সমালোচিত ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয়ের খণ্ডকালীন শিক্ষক জনাব আসিফ মাহাতাব জাতীয় শিক্ষাক্রম সমাবেশে এক বক্তব্যে ষষ্ঠ শ্রেণীর ইতিহাস ও সমাজবিজ্ঞান বিষয়ে কয়েকটি পেজ ছিড়ে ফেলে। এতে তিনি প্রতিবাদ করে বলেন উক্ত পাঠ্যক্রমে শরীফ থেকে শরীফা কিভাবে হয়। তিনি বলেন তৃতীয় লিঙ্গ (হিজরা) আল্লাহ তায়ালার সৃষ্টি। আর ট্রানজেন্ডার কোন কোন সৃষ্টি নয় এটা মনে মনে ভাবলেই হয়ে যায় এমন স্লোগান।

এ সকল বিষয় নিয়ে সারাদেশে সমাবেশে ঝড় ওঠে এরই প্রেক্ষিতে ঢাকা কলেজ ছাত্রসমাজ ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয়ের খণ্ডকালীন শিক্ষক জনাব আসিফ মাহাতাব কে সমর্থন করে উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের সাথে একাত্ম পোষণ করেন ঢাকা কলেজ ছাত্রসমাজ।

ঢাকা কলেজ ছাত্র সমাজ কয়েকটি দাবি তুলে ধরেন(১) ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য তারা চান বাস্তবমুখী শিক্ষা (২) শরীফ থেকে শরিফা পাঠ্যক্রম থেকে তুলে দিতে হবে (৩) পাঠ্যক্রমে কেন ভুল তথ্য দিচ্ছে তা শিক্ষা শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে জবাব দিতে হবে (৪) ট্রানজেন্ডা দিয়ে কেন সমাজে বিশৃঙ্খলা হলো তার জবাব দিতে হবে।

তারা ক্যাম্পাসের মূল ফটক থেকে প্রতিবাদ রেলি শুরু করে সাইন্সল্যাব সিটি কলেজ হয় বলাকা সিনেমা হল হয়ে নাঈমের গলিতে এসে বন্ধ করেন।

সমাবেশ অনুষ্ঠানে তারা বলেন ষষ্ঠ শ্রেণীর ইতিহাস ও সমাজবিজ্ঞান পাঠ্যক্রমে লেখা- যে আমি যদি মনে মনে ভাবি ছেলে হলে মেয়ে হয়ে যাব ;আর মেয়ে হলে ছেলে হয়ে যাব। এরকম একটি সিদ্ধান্ত কখনো ছাত্র সমাজ মেনে নিতে পারে না। এ সময় এক শিক্ষার্থী বলেন ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলন থেকে শুরু করে এই ঢাকা কলেজের ছাত্রসমাজ প্রতিরোধ করেছিল। তারই প্রেক্ষিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় পাঠ্যক্রম থেকে এ সকল মন্তব্য ও বিশৃঙ্খলার বিষয়গুলো অবিলম্বে তুলে নিতে হবে।
তারা আরো বলেন শিক্ষা মন্ত্রণালয় কে অতি দ্রুত এসকল বিষয় পাঠ্যক্রম থেকে বাতিল করতে হবে

তারা বলেন হিন্দু -মুসলিম আমাদের মধ্যে কোন ভেদাভেদ নেই কিন্তু কোন ধর্মেই সমকামিতা ও ট্রানজেন্ডার সমর্থন করেনা। তারা বলেন আসিফ স্যার কে পুনরায় তার চাকরিতে বহাল করতে হবে এবং শিক্ষার্থীদের সকল দাবি মেনে নিতে হবে।

পরিশেষে ঢাকা কলেজের ছাত্র সমাজের শিক্ষার্থীরা দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে আসিফ স্যার ও ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়ানোর আহবান করেন।