ঢাকা ০৯:৩১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo ঈদের আনন্দে প্রবাসীরা কতটুকু হাসি খুশি থাকে Logo ঈদুল আযাহার নামাজ আদায় চকশৈল্যা বাজার ঈদগাহ মাঠে। Logo বিরামপুরে সৌদির সাথে মিল রেখে ১৫টি গ্রামের পরিবারে ঈদুল আজহা উদযাপন Logo শেরপুরে পবিত্র ঈদুল আযহার উপলক্ষে শুভেচ্ছা ও আর্থিক সহায়তা দিলেন ছানুয়ার হোসেন ছানু এমপি Logo “দৈনিক বর্তমান সংবাদের নির্বাহী সম্পাদক ও এশিয়ান টিভি ভালুকা প্রতিনিধি”মো:কামরুল ইসলাম “পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা Logo “প্রেসক্লাব ভালুকা “সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম”পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা Logo “দৈনিক বর্তমান সংবাদের সহ সম্পাদক “সেরাজুর ইসলাম সিরাজ “পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা Logo দৈনিক বর্তমান সংবাদের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক “সুমন মিয়া “পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা Logo “দৈনিক বর্তমান সংবাদের প্রকাশক ও সম্পাদক”মামুন হাসান বিএ”পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা Logo ঈদ আগাম বুকিং কম চায়ের রাজ্য শ্রীমঙ্গলে

তৃৃনমূল রাজনীতি থেকে উঠে আসা স্বতন্ত্র প্রার্থী ” মেজর (অঃ) আব্দুল্লাহ আল মামুন

দৈনিক ক্রাইম নিউজ ২৪ ডেস্ক :
  • আপডেট সময় : ০৯:১৮:৫১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ ডিসেম্বর ২০২৩ ১৩৬ বার পড়া হয়েছে

তৃৃনমূল রাজনীতি থেকে উঠে আসা স্বতন্ত্র প্রার্থী
” মেজর (অঃ) আব্দুল্লাহ আল মামুন

সোহরাওয়ার্দী হোসেন সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি :

সিরাজগঞ্জ-৫(বেলকুচি – চৌহালী) আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী ও সাবেক চৌহালী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মেজর (অবঃ) আব্দু্লাহ আল মামুন বলেছেন, আমি আন্দোলনের অংশ হিসেবে নির্বাচনে এসেছি ।
জনগণের সাড়া কেমন পাচ্ছেন?এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, জনগণের অভাবনীয় সাড়া পাচ্ছি, আমি জাতীয়তাবাদী চেতনার লোক, বেলকুচি – চৌহালীর নির্যাতিত নিপীড়িত জনগণ জাতীয়তাবাদী চেতনার সাথে আছে, তারা পরিবর্তন চায়, তারা এই সংসদীয় আসন থেকে নতুন নেতৃত্ব দেখতে চায়,
জাতীয়তাবাদী চেতনার সবচেয়ে বড় দল বিএনপি নির্বাচনে আসেনি, তাহলে আপনি কেন নির্বাচনে আসলেন? এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, বিএনপি একটি বৃহৎ দল, বিএনপি নির্বাচনে আসেনি এটি তাদের রাজনৈতিক স্ট্যাটিজি, এটা তাদের জন্য ঠিক আছে, কিন্তু আমরা স্থানীয় জনগণের জন্য রাজনীতি করি, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি হিসেবে আমার বাবাও ছিল, আমিও ছিলাম, এখনো জনগণের সাথে আছি, সুতরাং স্থানীয় জনগণের চাহিদার কথাটাও আমাদের বিবেচনায় নিতে হয়, বর্তমান সরকারের প্রতি মানুষের প্রচণ্ড ক্ষোভ আছে, যার বিরুদ্ধে বিরোধীদল সমূহ আন্দোলন করছে, সে আন্দোলনের অংশ হিসেবে আমি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছি, যাতে জাতীয়তাবাদী চেতনার মানুষগুলো, ভোটের মাধ্যমে তাদের ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ ঘটাতে পারে।

সোমবার (২৫ ডিসেম্বর) বিকেলে বেলকুচির বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাথে সাক্ষাৎকারে, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়া স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে কাঁচি মার্কা প্রতিক পাওয়া মেজর আব্দুল্লাহ আল মামুন একথাগুলো বলেছেন।

মেজর মামুন সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলার বিএনপি দলীয় সাবেক নেতা এবং চৌহালী উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান। ২০১৪ সালে তিনি বিএনপির মনোনয়নে উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন।
তবে ২০১৯ সালে দলীয় সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে উপজেলা চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করায় তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়।
মেজর মামুনের বাবা আনছার আলী সিদ্দিকী বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের একজন সাবেক রাজনীতিবিদ, সাবেক পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী এবং সাবেক সাংসদ। তিনি ১৯৯১ সালের পঞ্চম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ও ফেব্রুয়ারি ১৯৯৬ সালের নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী হিসেবে চৌহালী আসন (সাবেক সিরাজগঞ্জ-৬ আসন) থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।

ট্যাগস :
Translate »

তৃৃনমূল রাজনীতি থেকে উঠে আসা স্বতন্ত্র প্রার্থী ” মেজর (অঃ) আব্দুল্লাহ আল মামুন

আপডেট সময় : ০৯:১৮:৫১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ ডিসেম্বর ২০২৩

তৃৃনমূল রাজনীতি থেকে উঠে আসা স্বতন্ত্র প্রার্থী
” মেজর (অঃ) আব্দুল্লাহ আল মামুন

সোহরাওয়ার্দী হোসেন সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি :

সিরাজগঞ্জ-৫(বেলকুচি – চৌহালী) আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী ও সাবেক চৌহালী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মেজর (অবঃ) আব্দু্লাহ আল মামুন বলেছেন, আমি আন্দোলনের অংশ হিসেবে নির্বাচনে এসেছি ।
জনগণের সাড়া কেমন পাচ্ছেন?এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, জনগণের অভাবনীয় সাড়া পাচ্ছি, আমি জাতীয়তাবাদী চেতনার লোক, বেলকুচি – চৌহালীর নির্যাতিত নিপীড়িত জনগণ জাতীয়তাবাদী চেতনার সাথে আছে, তারা পরিবর্তন চায়, তারা এই সংসদীয় আসন থেকে নতুন নেতৃত্ব দেখতে চায়,
জাতীয়তাবাদী চেতনার সবচেয়ে বড় দল বিএনপি নির্বাচনে আসেনি, তাহলে আপনি কেন নির্বাচনে আসলেন? এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, বিএনপি একটি বৃহৎ দল, বিএনপি নির্বাচনে আসেনি এটি তাদের রাজনৈতিক স্ট্যাটিজি, এটা তাদের জন্য ঠিক আছে, কিন্তু আমরা স্থানীয় জনগণের জন্য রাজনীতি করি, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি হিসেবে আমার বাবাও ছিল, আমিও ছিলাম, এখনো জনগণের সাথে আছি, সুতরাং স্থানীয় জনগণের চাহিদার কথাটাও আমাদের বিবেচনায় নিতে হয়, বর্তমান সরকারের প্রতি মানুষের প্রচণ্ড ক্ষোভ আছে, যার বিরুদ্ধে বিরোধীদল সমূহ আন্দোলন করছে, সে আন্দোলনের অংশ হিসেবে আমি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছি, যাতে জাতীয়তাবাদী চেতনার মানুষগুলো, ভোটের মাধ্যমে তাদের ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ ঘটাতে পারে।

সোমবার (২৫ ডিসেম্বর) বিকেলে বেলকুচির বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাথে সাক্ষাৎকারে, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়া স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে কাঁচি মার্কা প্রতিক পাওয়া মেজর আব্দুল্লাহ আল মামুন একথাগুলো বলেছেন।

মেজর মামুন সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলার বিএনপি দলীয় সাবেক নেতা এবং চৌহালী উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান। ২০১৪ সালে তিনি বিএনপির মনোনয়নে উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন।
তবে ২০১৯ সালে দলীয় সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে উপজেলা চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করায় তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়।
মেজর মামুনের বাবা আনছার আলী সিদ্দিকী বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের একজন সাবেক রাজনীতিবিদ, সাবেক পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী এবং সাবেক সাংসদ। তিনি ১৯৯১ সালের পঞ্চম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ও ফেব্রুয়ারি ১৯৯৬ সালের নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী হিসেবে চৌহালী আসন (সাবেক সিরাজগঞ্জ-৬ আসন) থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।