ঢাকা ০৮:৫৩ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo ঈদের আনন্দে প্রবাসীরা কতটুকু হাসি খুশি থাকে Logo ঈদুল আযাহার নামাজ আদায় চকশৈল্যা বাজার ঈদগাহ মাঠে। Logo বিরামপুরে সৌদির সাথে মিল রেখে ১৫টি গ্রামের পরিবারে ঈদুল আজহা উদযাপন Logo শেরপুরে পবিত্র ঈদুল আযহার উপলক্ষে শুভেচ্ছা ও আর্থিক সহায়তা দিলেন ছানুয়ার হোসেন ছানু এমপি Logo “দৈনিক বর্তমান সংবাদের নির্বাহী সম্পাদক ও এশিয়ান টিভি ভালুকা প্রতিনিধি”মো:কামরুল ইসলাম “পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা Logo “প্রেসক্লাব ভালুকা “সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম”পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা Logo “দৈনিক বর্তমান সংবাদের সহ সম্পাদক “সেরাজুর ইসলাম সিরাজ “পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা Logo দৈনিক বর্তমান সংবাদের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক “সুমন মিয়া “পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা Logo “দৈনিক বর্তমান সংবাদের প্রকাশক ও সম্পাদক”মামুন হাসান বিএ”পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা Logo ঈদ আগাম বুকিং কম চায়ের রাজ্য শ্রীমঙ্গলে

দিঘলিয়ায় ৬ বছরের শিশু ধর্ষণের শিকার নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা।

শাহাদাত হোসেন নোবেল
  • আপডেট সময় : ০৯:২৯:৩৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৯ মে ২০২৪ ২৭ বার পড়া হয়েছে

শাহাদাত হোসেন নোবেল খুলনা প্রতিনিধি

খুলনার দিঘলিয়া উপজেলার বারাকপুর ইউনিয়নের বারাকপুর গ্রামে ছয় বছরের এক শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে থানায় অভিযোগ করেছে তার স্বজনরা।
বারাকপুর গ্রামে গোলাম মিনার পুত্র হারুন মিনা (৪৫) কর্তৃক এক শিশু (৬) ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ধর্ষককে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। এ ব্যাপারে দিঘলিয়া থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।

ভুক্তভোগী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়,
ধর্ষিত শিশুটি স্থানীয় একটি কেজি স্কুলের প্রথম শ্রেণির ছাত্রী।শিশুটি তার নানা বাড়ি থেকে লেখাপড়া করে।দিঘলিয়া উপজেলার বারাকপুর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের বারাকপুর উত্তর পাড়ায় এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। গতকাল বুধবার (৮ মে) বিকাল ৫ টার দিকে উক্ত শিশু উঠানে খেলা করা অবস্থায় পাশের বাড়ির ধর্ষক হারুন মিনা তাকে নিজ ঘরে ডেকে নিয়ে জোর করে ধর্ষণ করে। এ সময় শিশুর চিৎকারে লোকজন ছুটে এসে ধর্ষক হারুন মিনাকে হাতেনাতে ধরে ফেলে এবং শিশুটিকে উদ্ধার করে। এ ঘটনা এলাকায় জানাজনি হয়ে পড়লে একটি মহল ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করে এবং ভুক্তভোগীকে থানায় আসতে বাধার সৃষ্টি করে। তখন শিশুর স্বজনরা গোপনে ৯৯৯ এ কল দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ধর্ষক হারুনকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে এবং ধর্ষণের শিকার শিশুটিকে বুধবার (৮ মে) রাত সাড়ে ৯ টার দিকে দিঘলিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ তাসনিয়া শিশুটিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেন। পরবর্তীতে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ওয়ান-স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হয়েছে বলে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ মাহবুবুল আলম এ প্রতিবেদককে জানান।
দিঘলিয়া থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ বাবুল আক্তার জানান, সংবাদ পেয়ে পুলিশ তৎক্ষনাৎ ঘটনাস্থলে গিয়ে ধর্ষক হারুন মিনাকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। ডাক্তারী পরীক্ষার পর জানা যাবে শিশুটিকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে নাকি ধর্ষণ করা হয়েছে।
ধর্ষণের শিকার শিশুটির নানি আকলিমা বেগম নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ০৮।

ট্যাগস :
Translate »

দিঘলিয়ায় ৬ বছরের শিশু ধর্ষণের শিকার নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা।

আপডেট সময় : ০৯:২৯:৩৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৯ মে ২০২৪

শাহাদাত হোসেন নোবেল খুলনা প্রতিনিধি

খুলনার দিঘলিয়া উপজেলার বারাকপুর ইউনিয়নের বারাকপুর গ্রামে ছয় বছরের এক শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে থানায় অভিযোগ করেছে তার স্বজনরা।
বারাকপুর গ্রামে গোলাম মিনার পুত্র হারুন মিনা (৪৫) কর্তৃক এক শিশু (৬) ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ধর্ষককে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। এ ব্যাপারে দিঘলিয়া থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।

ভুক্তভোগী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়,
ধর্ষিত শিশুটি স্থানীয় একটি কেজি স্কুলের প্রথম শ্রেণির ছাত্রী।শিশুটি তার নানা বাড়ি থেকে লেখাপড়া করে।দিঘলিয়া উপজেলার বারাকপুর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের বারাকপুর উত্তর পাড়ায় এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। গতকাল বুধবার (৮ মে) বিকাল ৫ টার দিকে উক্ত শিশু উঠানে খেলা করা অবস্থায় পাশের বাড়ির ধর্ষক হারুন মিনা তাকে নিজ ঘরে ডেকে নিয়ে জোর করে ধর্ষণ করে। এ সময় শিশুর চিৎকারে লোকজন ছুটে এসে ধর্ষক হারুন মিনাকে হাতেনাতে ধরে ফেলে এবং শিশুটিকে উদ্ধার করে। এ ঘটনা এলাকায় জানাজনি হয়ে পড়লে একটি মহল ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করে এবং ভুক্তভোগীকে থানায় আসতে বাধার সৃষ্টি করে। তখন শিশুর স্বজনরা গোপনে ৯৯৯ এ কল দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ধর্ষক হারুনকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে এবং ধর্ষণের শিকার শিশুটিকে বুধবার (৮ মে) রাত সাড়ে ৯ টার দিকে দিঘলিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ তাসনিয়া শিশুটিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেন। পরবর্তীতে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ওয়ান-স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হয়েছে বলে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ মাহবুবুল আলম এ প্রতিবেদককে জানান।
দিঘলিয়া থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ বাবুল আক্তার জানান, সংবাদ পেয়ে পুলিশ তৎক্ষনাৎ ঘটনাস্থলে গিয়ে ধর্ষক হারুন মিনাকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। ডাক্তারী পরীক্ষার পর জানা যাবে শিশুটিকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে নাকি ধর্ষণ করা হয়েছে।
ধর্ষণের শিকার শিশুটির নানি আকলিমা বেগম নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ০৮।