ঢাকা ১১:৪৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo ঈদের আনন্দে প্রবাসীরা কতটুকু হাসি খুশি থাকে Logo ঈদুল আযাহার নামাজ আদায় চকশৈল্যা বাজার ঈদগাহ মাঠে। Logo বিরামপুরে সৌদির সাথে মিল রেখে ১৫টি গ্রামের পরিবারে ঈদুল আজহা উদযাপন Logo শেরপুরে পবিত্র ঈদুল আযহার উপলক্ষে শুভেচ্ছা ও আর্থিক সহায়তা দিলেন ছানুয়ার হোসেন ছানু এমপি Logo “দৈনিক বর্তমান সংবাদের নির্বাহী সম্পাদক ও এশিয়ান টিভি ভালুকা প্রতিনিধি”মো:কামরুল ইসলাম “পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা Logo “প্রেসক্লাব ভালুকা “সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম”পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা Logo “দৈনিক বর্তমান সংবাদের সহ সম্পাদক “সেরাজুর ইসলাম সিরাজ “পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা Logo দৈনিক বর্তমান সংবাদের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক “সুমন মিয়া “পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা Logo “দৈনিক বর্তমান সংবাদের প্রকাশক ও সম্পাদক”মামুন হাসান বিএ”পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা Logo ঈদ আগাম বুকিং কম চায়ের রাজ্য শ্রীমঙ্গলে

নতুন রাস্তা পেয়ে খুশি এলাকাবাসী নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি রাখলেন: মেয়র আনিছুর

আরাফাত হোসেন
  • আপডেট সময় : ১১:৫২:৩২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জানুয়ারী ২০২৪ ৮১ বার পড়া হয়েছে

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি:
বগুড়ার নন্দীগ্রাম পৌর এলাকার হাজার মানুষের চলাচলের জন্য ইট সোলিং রাস্তা নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করা হয়েছে। এতে দুই যুগ পরে চলাচলের জন্য রাস্তা পেয়ে স্বপ্ন পূরণ হলো গ্রামবাসীর। রবিবার (১৪ জানুয়ারি) বিকালে নন্দীগ্রাম পৌর এলাকার ১ নং ওয়ার্ডের কালিকাপুর ঘোলাগাড়ী মহল্লার দীর্ঘদিনের ভোগান্তি এড়াতে ৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ইট সোলিং রাস্তা নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভার মেয়র আনিছুর রহমান।

জানা গেছে, বৃষ্টির দিনে কালিকাপুর ঘোলা গাড়ী রাস্তা চলাচলের অযোগ্য ছিল। প্রথম ধাপে গতবছর এই রাস্তার আংশিক সোলিং কাজ ৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হয়। এই বছর দ্বিতীয় ধাপে আরো ৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে এই রাস্তার কাজ সম্পন্ন করা হচ্ছে। ইট সোলিং কাজ করায় জনগণের দুর্ভোগের অবসান ঘটবে ।

পৌর বাসিন্দা রফিকুল ইসলাম জানান, নন্দীগ্রাম পৌর এলাকার ঘোলাগাড়ী মহল্লা বাসী দীর্ঘ দিন ধরে এই রাস্তার দাবি করে আসছিলো । কিন্তু কেউ কথা রাখেনি, আমরা নাগরিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত ছিলাম।এখন এই অবহেলিত রাস্তা ইট সোলিং করে মেয়র আনিছুর রহমান তার নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করলো । মেয়রকে প্রতিশ্রুতি রক্ষার জন্য ধন্যবাদ।নতুন রাস্তা পেয়ে খুশি আমরা।
পৌরসভার মেয়র আনিছুর রহমান বলেন, পৌর এলাকার কালিকাপুর ঘোলাগাড়ী মহল্লা বাসী রাস্তার জন্য চরম জনদুর্ভোগে ছিলো ।একটু বৃষ্টি হলেই কাদা হতো। জনসাধারণের চলাফেরা, অসুস্থ ব্যক্তিকে হাসপাতালে নিয়ে আসার জন্য কোন রাস্তায় ছিলো না। নতুন আঙ্গিকে এই রাস্তা নির্মিত হলো এবং নির্বাচনী অঙ্গীকার ছিল। প্রথম ধাপে গতবছর এই রাস্তার আংশিক সোলিং কাজ ৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হয়। এই বছর দ্বিতীয় ধাপে আরো ৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে এই রাস্তার কাজ সম্পন্ন করা হচ্ছে। ২৩ বছর পর জনগণের দূর্ভোগের অবসান ঘটলো।

ট্যাগস :
Translate »

নতুন রাস্তা পেয়ে খুশি এলাকাবাসী নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি রাখলেন: মেয়র আনিছুর

আপডেট সময় : ১১:৫২:৩২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জানুয়ারী ২০২৪

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি:
বগুড়ার নন্দীগ্রাম পৌর এলাকার হাজার মানুষের চলাচলের জন্য ইট সোলিং রাস্তা নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করা হয়েছে। এতে দুই যুগ পরে চলাচলের জন্য রাস্তা পেয়ে স্বপ্ন পূরণ হলো গ্রামবাসীর। রবিবার (১৪ জানুয়ারি) বিকালে নন্দীগ্রাম পৌর এলাকার ১ নং ওয়ার্ডের কালিকাপুর ঘোলাগাড়ী মহল্লার দীর্ঘদিনের ভোগান্তি এড়াতে ৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ইট সোলিং রাস্তা নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভার মেয়র আনিছুর রহমান।

জানা গেছে, বৃষ্টির দিনে কালিকাপুর ঘোলা গাড়ী রাস্তা চলাচলের অযোগ্য ছিল। প্রথম ধাপে গতবছর এই রাস্তার আংশিক সোলিং কাজ ৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হয়। এই বছর দ্বিতীয় ধাপে আরো ৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে এই রাস্তার কাজ সম্পন্ন করা হচ্ছে। ইট সোলিং কাজ করায় জনগণের দুর্ভোগের অবসান ঘটবে ।

পৌর বাসিন্দা রফিকুল ইসলাম জানান, নন্দীগ্রাম পৌর এলাকার ঘোলাগাড়ী মহল্লা বাসী দীর্ঘ দিন ধরে এই রাস্তার দাবি করে আসছিলো । কিন্তু কেউ কথা রাখেনি, আমরা নাগরিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত ছিলাম।এখন এই অবহেলিত রাস্তা ইট সোলিং করে মেয়র আনিছুর রহমান তার নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করলো । মেয়রকে প্রতিশ্রুতি রক্ষার জন্য ধন্যবাদ।নতুন রাস্তা পেয়ে খুশি আমরা।
পৌরসভার মেয়র আনিছুর রহমান বলেন, পৌর এলাকার কালিকাপুর ঘোলাগাড়ী মহল্লা বাসী রাস্তার জন্য চরম জনদুর্ভোগে ছিলো ।একটু বৃষ্টি হলেই কাদা হতো। জনসাধারণের চলাফেরা, অসুস্থ ব্যক্তিকে হাসপাতালে নিয়ে আসার জন্য কোন রাস্তায় ছিলো না। নতুন আঙ্গিকে এই রাস্তা নির্মিত হলো এবং নির্বাচনী অঙ্গীকার ছিল। প্রথম ধাপে গতবছর এই রাস্তার আংশিক সোলিং কাজ ৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হয়। এই বছর দ্বিতীয় ধাপে আরো ৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে এই রাস্তার কাজ সম্পন্ন করা হচ্ছে। ২৩ বছর পর জনগণের দূর্ভোগের অবসান ঘটলো।