ঢাকা ১২:১৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo যুব মাতৃ সেবক সামাজিক সংগঠন শিবপুর বটতলী বাজার ফেনী Logo শ্রীমঙ্গলে গৃহপালিত কুকুরের সঙ্গে বুনো শুকরের বন্ধুত্ব Logo শাহজাদপুরে ৬ দিনব্যাপী কৃষি মেলার শুভ উদ্বোধন Logo বিরামপুরে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরন Logo বিরামপুরের সর্প দর্শন বিষয়ক সচেতনতা মূলক সেমিনার অনুষ্ঠিত Logo পলাশবাড়ীতে বিআরডিবি সুফলভুগি সদস্যদের তিন দিনব্যাপী দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণের শুভ উদ্বোধন Logo ধর্মপাশায় ভুয়া প্রকল্পের বরাদ্দ দেখিয়ে 10 টন চাল আত্মসাৎ এর অভিযোগ Logo কুড়িগ্রামের ভোগ ডাঙ্গায় ওষুধ বাকি না দেওয়ায় ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ সেনা সদস্যের বিরুদ্ধে Logo বাংলাদেশের সকল অর্জন আওয়ামী লীগের হাত ধরে এসেছে: এমপি আলহাজ্ব এস এম আল মামুন Logo শ্রীপুরে বিয়ে ভেঙে যাওয়ায় ‘আত্মহত্যা করলেন যুবক

পাগলা থানায় ধর্ষণ মামলার আসামী গ্রেফতার

জাকিয়া বেগম
  • আপডেট সময় : ০৮:৩১:৫২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ১০৬ বার পড়া হয়েছে

জাকিয়া বেগম
ত্রিশাল (ময়মনসিংহ)প্রতিনিধি

ময়মনসিংহের পাগলা থানার টাংগাব ইউনিয়নের টাংগাব গ্রামের সরকারি আশ্রয়ণ প্রকল্পে থাকা ১৩ বছরের ৬ষ্ঠ শ্রেণী পড়ুয়া এক কিশোরি ধর্ষণ করা আসামীকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। উল্লেখ্য গত ২২ ডিসেম্বর ২০২৩ রাত সাড়ে নয়টায় বাড়ির পাশে ঝোপে ধর্ষিত হয় এই কিশোরী । এই ঘটনায় জড়িত ৩ জনের বিরুদ্ধে পাগলা থানায় মামলা হয়। যার মামলা নং ০৮, তাং ২৯/১২/২০২৩, ধারাঃ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০(সং /০৩) এর ৯(১)/৩০। মামলাটি চাঞ্চল্যকর মামলা হিসাবে ময়মনসিংহ রেঞ্জ ডিআইজি মনিটরিং সেলের অন্তর্ভুক্ত হয়। মামলার পর থেকে ঘটনার সাথে জড়িত আসামীরা গা ঢাকা দেয়। দীর্ঘ প্রায় দেড় মাস পর মামলাটির ২য় তদন্ত কর্মকর্তা পাগলা থানার সেকেন্ড অফিসার এস আই (নিঃ) মোঃ আমিনুল হক ঢাকার বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে প্রধান আসামী ১। মোঃ সোহেল (২৫), পিতা আঃ মালেক, সাং টাংগাব, থানা- পাগলা, জেলা- ময়মনসিংহ কে ঢাকার নিকুঞ্জ এলাকা হইতে গ্রেফতার করে। এস আই (নিঃ) আমিনুল হক আসামী গ্রেফতারের পর জিজ্ঞাসাবাদে আসামী ঘটনার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে। আজ ১০ফ্রেরুয়ারী আসামী সোহেল (২৫) বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, ৪র্থ আদালতে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি প্রদান করেছেন। বিজ্ঞ আদালতে আসামীকে জেল হাজতে প্রেরণ করেন। এই বিষয়ে মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা এস আই(নিঃ) মোহাম্মদ আমিনুল হক জানান, ধর্ষণের স্বীকার মেয়েটির পরিবার খুবই গরীব এবং অসহায়। মামলার প্রধান আসামীকে অভিযান করে ধরতে পেরে ভালো লাগছে। অন্য সহযোগী আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত থাকবে। পাগলা থানার অফিসার ইনচার্জ জনাব খায়রুল বাশার জানান, এই মামলাটি আমাদের জন্য খুব সেনসেটিভ ছিলো। প্রধান আসামী ধরা পড়েছে। অন্য আসামীদের গ্রেফতার সহ ভিকটিমের পরিবার যাতে ন্যায়বিচার পায় সেই লক্ষ্যে কাজ করবো।

ট্যাগস :
Translate »

পাগলা থানায় ধর্ষণ মামলার আসামী গ্রেফতার

আপডেট সময় : ০৮:৩১:৫২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

জাকিয়া বেগম
ত্রিশাল (ময়মনসিংহ)প্রতিনিধি

ময়মনসিংহের পাগলা থানার টাংগাব ইউনিয়নের টাংগাব গ্রামের সরকারি আশ্রয়ণ প্রকল্পে থাকা ১৩ বছরের ৬ষ্ঠ শ্রেণী পড়ুয়া এক কিশোরি ধর্ষণ করা আসামীকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। উল্লেখ্য গত ২২ ডিসেম্বর ২০২৩ রাত সাড়ে নয়টায় বাড়ির পাশে ঝোপে ধর্ষিত হয় এই কিশোরী । এই ঘটনায় জড়িত ৩ জনের বিরুদ্ধে পাগলা থানায় মামলা হয়। যার মামলা নং ০৮, তাং ২৯/১২/২০২৩, ধারাঃ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০(সং /০৩) এর ৯(১)/৩০। মামলাটি চাঞ্চল্যকর মামলা হিসাবে ময়মনসিংহ রেঞ্জ ডিআইজি মনিটরিং সেলের অন্তর্ভুক্ত হয়। মামলার পর থেকে ঘটনার সাথে জড়িত আসামীরা গা ঢাকা দেয়। দীর্ঘ প্রায় দেড় মাস পর মামলাটির ২য় তদন্ত কর্মকর্তা পাগলা থানার সেকেন্ড অফিসার এস আই (নিঃ) মোঃ আমিনুল হক ঢাকার বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে প্রধান আসামী ১। মোঃ সোহেল (২৫), পিতা আঃ মালেক, সাং টাংগাব, থানা- পাগলা, জেলা- ময়মনসিংহ কে ঢাকার নিকুঞ্জ এলাকা হইতে গ্রেফতার করে। এস আই (নিঃ) আমিনুল হক আসামী গ্রেফতারের পর জিজ্ঞাসাবাদে আসামী ঘটনার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে। আজ ১০ফ্রেরুয়ারী আসামী সোহেল (২৫) বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, ৪র্থ আদালতে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি প্রদান করেছেন। বিজ্ঞ আদালতে আসামীকে জেল হাজতে প্রেরণ করেন। এই বিষয়ে মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা এস আই(নিঃ) মোহাম্মদ আমিনুল হক জানান, ধর্ষণের স্বীকার মেয়েটির পরিবার খুবই গরীব এবং অসহায়। মামলার প্রধান আসামীকে অভিযান করে ধরতে পেরে ভালো লাগছে। অন্য সহযোগী আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত থাকবে। পাগলা থানার অফিসার ইনচার্জ জনাব খায়রুল বাশার জানান, এই মামলাটি আমাদের জন্য খুব সেনসেটিভ ছিলো। প্রধান আসামী ধরা পড়েছে। অন্য আসামীদের গ্রেফতার সহ ভিকটিমের পরিবার যাতে ন্যায়বিচার পায় সেই লক্ষ্যে কাজ করবো।