ঢাকা ১১:০৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo ঈদের আনন্দে প্রবাসীরা কতটুকু হাসি খুশি থাকে Logo ঈদুল আযাহার নামাজ আদায় চকশৈল্যা বাজার ঈদগাহ মাঠে। Logo বিরামপুরে সৌদির সাথে মিল রেখে ১৫টি গ্রামের পরিবারে ঈদুল আজহা উদযাপন Logo শেরপুরে পবিত্র ঈদুল আযহার উপলক্ষে শুভেচ্ছা ও আর্থিক সহায়তা দিলেন ছানুয়ার হোসেন ছানু এমপি Logo “দৈনিক বর্তমান সংবাদের নির্বাহী সম্পাদক ও এশিয়ান টিভি ভালুকা প্রতিনিধি”মো:কামরুল ইসলাম “পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা Logo “প্রেসক্লাব ভালুকা “সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম”পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা Logo “দৈনিক বর্তমান সংবাদের সহ সম্পাদক “সেরাজুর ইসলাম সিরাজ “পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা Logo দৈনিক বর্তমান সংবাদের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক “সুমন মিয়া “পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা Logo “দৈনিক বর্তমান সংবাদের প্রকাশক ও সম্পাদক”মামুন হাসান বিএ”পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা Logo ঈদ আগাম বুকিং কম চায়ের রাজ্য শ্রীমঙ্গলে

প্রতীক-প্রার্থী দুইয়ে মিলে জয়ের দারপ্রান্তে আসাদ

মোঃ মেহেদী হাসান মুন্না, রাজশাহী ব্যুরো
  • আপডেট সময় : ১২:৩৩:০৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৫ জানুয়ারী ২০২৪ ১৬৮ বার পড়া হয়েছে

মোঃ মেহেদী হাসান মুন্না, রাজশাহী ব্যুরো: দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনে নৌকার প্রতীক নিয়ে প্রার্থী হয়েছেন রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ। এই আসনে আসাদ ছাড়াও আরও তিনজন প্রার্থী নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করেছে। তবে অন্যান্য আসনের মতো এই আসনে আওয়ামী লীগের কোন সতন্ত্র প্রার্থী নেই।

সেই সুবাদে নৌকার বিপরীতে আওয়ামী লীগের কোন প্রাথীর দিকে ভোট যাওয়ার সম্ভাবনাও নাই। রাজশাহীর ৬ টি আসনের মধ্যে ৫ টি আসনেই আওয়ামী লীগের সতন্ত্র প্রার্থী রয়েছে। কয়েকটি আসনে সতন্ত্র প্রার্থীর কারনে নৌকার জয় লাভ করার সম্ভাবনা ও কমে গেছে।

রাজশাহী ১ ( গোদাগাড়ী- তানোর) আসনে নৌকাকে হারাতে শুধু আওয়ামী লীগের সতন্ত্র প্রার্থী চারজন তারমধ্য একজন প্রার্থী আরেক সতন্ত্র প্রার্থীকে সমর্থন করে নির্বাচন থেকে সরে গেছে। এতে নৌকার প্রার্থী তিনবারে সংসদ সদস্য ফারুক চৌধুরীর জয়ের ব্যাপারে অনিশ্চিয়তা দেখা দিয়েছে।

রাজশাহী সদর-২ আসনে নৌকার বিপরীতে আওয়ামী লীগের সতন্ত্র প্রার্থী অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশাকে মহানগর আওয়ামী লীগ সমর্থন জানিয়ে নৌকার প্রার্থী ১৪ দলের ফজলে হোসেন বাদশার জয় অনিশ্চিত হয়েছে। তবে মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার নৌকার পক্ষে মাঠে নেমে ফজলে হোসেন বাদশার অবস্থা কিছুটা হলেও ভালো হয়েছে তবুও সেটা জয়ের ব্যপারে সুনিশ্চিত নয়। একই অবস্থা রাজশাহী বাগমারা আসনে সেখানে নৌকার বিপরীতে প্রার্থী হয়েছেন দুইবারের সংসদ সদস্য এনামুল।

দূর্গাপুর- পুঠিয়া, বাঘা- চারঘাট আসনেও শক্ত অবস্থানে রয়েছে আওয়ামী লীগের সতন্ত্র প্রার্থীরা। সেদিন থেকে পবা-মোহনপুরে আওয়ামী লীগের সতন্ত্র কোন প্রার্থী না থাকায় আসাদের নৌকার বিজয় অনেকটা সুনিশ্চিত আশা করছে পবা-মোহনপুরের আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা।

পবা- মোহপুরের একাধিক নেতাকর্মীরা জানান “আসাদুজ্জামান আসাদ তৃণমূলের নেতা-কর্মীদের ভরসা, দীর্ঘ দিন থেকে জেলার রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত থাকার জন্য দলের নেতাকর্মীদের কাছে তিনি অত্যান্ত আস্থাভাজন ব্যাক্তি। আমরা পবা মোহনপুরের আওয়ামী লীগ  নেতাকর্মীরা বিশেষ করে তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা আসাদ ভাইয়ের জয়ের ব্যাপার নিশ্চিত”।

প্রতীক পাবার পর থেকে আসাদ ব্যাপক ভাবে প্রচারণায় নামে। আসাদের পক্ষে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি মণ্ডলীর সদস্য এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন ও এই আসনে সভা সমাবেশ করে।

আওয়ামী লীগের সতন্ত্র প্রার্থীদের পক্ষে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের বক্তব্য এবার প্রতীক নয় প্রার্থীর পক্ষে কাজ করছি। তবে সেই দিক থেকে আসাদ পুরোপুরি ভাবে সফল হয়েছেন। আওয়ামী লীগের নৌকা ও ব্যাক্তি আসাদ মিলে ভোটের মাঠ দখল করে নিয়েছেন তিনি।

রাজনৈতিক ক্যারিয়ারে সফল ও জনপ্রিয় ব্যাক্তি হিসেবে আসাদের অবস্থান রয়েছে। দীর্ঘ দিন আওয়ামী লীগের কোন পদে না থেকেও রাজশাহী জেলার প্রতিটি ইউনিয়ন, উপজেলায় রয়েছে তার জনপ্রিয়তা।

এছাড়া পবা-মোহনপুরের সকল মেয়র ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, মেম্বারদেকেও দেখা গেছে আসাদের নৌকার পক্ষে প্রচার প্রচারণা করতে। তাই সব মিলিয়ে পবা-মোহনপুরে নৌকার বিজয় অনেকটা সুনিশ্চিত বলে আশাবাদী দলের নেতাকর্মীরা।

Translate »

প্রতীক-প্রার্থী দুইয়ে মিলে জয়ের দারপ্রান্তে আসাদ

আপডেট সময় : ১২:৩৩:০৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৫ জানুয়ারী ২০২৪

মোঃ মেহেদী হাসান মুন্না, রাজশাহী ব্যুরো: দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনে নৌকার প্রতীক নিয়ে প্রার্থী হয়েছেন রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ। এই আসনে আসাদ ছাড়াও আরও তিনজন প্রার্থী নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করেছে। তবে অন্যান্য আসনের মতো এই আসনে আওয়ামী লীগের কোন সতন্ত্র প্রার্থী নেই।

সেই সুবাদে নৌকার বিপরীতে আওয়ামী লীগের কোন প্রাথীর দিকে ভোট যাওয়ার সম্ভাবনাও নাই। রাজশাহীর ৬ টি আসনের মধ্যে ৫ টি আসনেই আওয়ামী লীগের সতন্ত্র প্রার্থী রয়েছে। কয়েকটি আসনে সতন্ত্র প্রার্থীর কারনে নৌকার জয় লাভ করার সম্ভাবনা ও কমে গেছে।

রাজশাহী ১ ( গোদাগাড়ী- তানোর) আসনে নৌকাকে হারাতে শুধু আওয়ামী লীগের সতন্ত্র প্রার্থী চারজন তারমধ্য একজন প্রার্থী আরেক সতন্ত্র প্রার্থীকে সমর্থন করে নির্বাচন থেকে সরে গেছে। এতে নৌকার প্রার্থী তিনবারে সংসদ সদস্য ফারুক চৌধুরীর জয়ের ব্যাপারে অনিশ্চিয়তা দেখা দিয়েছে।

রাজশাহী সদর-২ আসনে নৌকার বিপরীতে আওয়ামী লীগের সতন্ত্র প্রার্থী অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশাকে মহানগর আওয়ামী লীগ সমর্থন জানিয়ে নৌকার প্রার্থী ১৪ দলের ফজলে হোসেন বাদশার জয় অনিশ্চিত হয়েছে। তবে মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার নৌকার পক্ষে মাঠে নেমে ফজলে হোসেন বাদশার অবস্থা কিছুটা হলেও ভালো হয়েছে তবুও সেটা জয়ের ব্যপারে সুনিশ্চিত নয়। একই অবস্থা রাজশাহী বাগমারা আসনে সেখানে নৌকার বিপরীতে প্রার্থী হয়েছেন দুইবারের সংসদ সদস্য এনামুল।

দূর্গাপুর- পুঠিয়া, বাঘা- চারঘাট আসনেও শক্ত অবস্থানে রয়েছে আওয়ামী লীগের সতন্ত্র প্রার্থীরা। সেদিন থেকে পবা-মোহনপুরে আওয়ামী লীগের সতন্ত্র কোন প্রার্থী না থাকায় আসাদের নৌকার বিজয় অনেকটা সুনিশ্চিত আশা করছে পবা-মোহনপুরের আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা।

পবা- মোহপুরের একাধিক নেতাকর্মীরা জানান “আসাদুজ্জামান আসাদ তৃণমূলের নেতা-কর্মীদের ভরসা, দীর্ঘ দিন থেকে জেলার রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত থাকার জন্য দলের নেতাকর্মীদের কাছে তিনি অত্যান্ত আস্থাভাজন ব্যাক্তি। আমরা পবা মোহনপুরের আওয়ামী লীগ  নেতাকর্মীরা বিশেষ করে তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা আসাদ ভাইয়ের জয়ের ব্যাপার নিশ্চিত”।

প্রতীক পাবার পর থেকে আসাদ ব্যাপক ভাবে প্রচারণায় নামে। আসাদের পক্ষে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি মণ্ডলীর সদস্য এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন ও এই আসনে সভা সমাবেশ করে।

আওয়ামী লীগের সতন্ত্র প্রার্থীদের পক্ষে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের বক্তব্য এবার প্রতীক নয় প্রার্থীর পক্ষে কাজ করছি। তবে সেই দিক থেকে আসাদ পুরোপুরি ভাবে সফল হয়েছেন। আওয়ামী লীগের নৌকা ও ব্যাক্তি আসাদ মিলে ভোটের মাঠ দখল করে নিয়েছেন তিনি।

রাজনৈতিক ক্যারিয়ারে সফল ও জনপ্রিয় ব্যাক্তি হিসেবে আসাদের অবস্থান রয়েছে। দীর্ঘ দিন আওয়ামী লীগের কোন পদে না থেকেও রাজশাহী জেলার প্রতিটি ইউনিয়ন, উপজেলায় রয়েছে তার জনপ্রিয়তা।

এছাড়া পবা-মোহনপুরের সকল মেয়র ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, মেম্বারদেকেও দেখা গেছে আসাদের নৌকার পক্ষে প্রচার প্রচারণা করতে। তাই সব মিলিয়ে পবা-মোহনপুরে নৌকার বিজয় অনেকটা সুনিশ্চিত বলে আশাবাদী দলের নেতাকর্মীরা।