সংবাদ শিরোনাম ::
Logo কোটা আন্দোলন :বৃহস্পতিবার খুলনা কমপ্লিট ‘শাটডাউন ` Logo কোটা সংস্কার আন্দোলন কে কেন্দ্র করে শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগের মধ্যে পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি Logo পলাশবাড়ীতে গ্যারেজের নাইটগার্ডকে হত্যা করে ইজিবাইক লুটের চার দিনের মাথায় গ্রেপ্তার ৪, ইজিবাইক উদ্ধার ১ Logo শ্রীমঙ্গলে বায়তুন নূর জামে মসজিদের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন উদ্বোধন Logo কোটা আন্দোলন: অবরোধ,বিক্ষোভ,ও গায়েবানা জানাযা অনুষ্ঠিত খুলনায়। Logo কোটা আন্দোলনকারীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে বিরামপুরে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল  Logo বাগমারায় ক্রেতার হারিয়ে যাওয়ার টাকা কুড়িয়ে পেয়ে ফেরত দিলেন ব্যবসায়ী  Logo কালিয়াকৈরে ঘুরতে গিয়ে পানির স্রোতে নৌকা ডুবে মা-ছেলে নিহত। Logo বিরামপুরে বিদ্যালয়ের শ্রেণী কক্ষে চলছে কোচিং  Logo ত্রিশালে মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল

বিরামপুরে সৌদির সাথে মিল রেখে ১৫টি গ্রামের পরিবারে ঈদুল আজহা উদযাপন

মোঃ ইব্রাহীম মিঞা, বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:
  • আপডেট সময় : ০৫:১৬:৩৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪ ২১ বার পড়া হয়েছে

মোঃ ইব্রাহীম মিঞা, বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: আগামীকাল সোমবার (১৭ জুন ) ‘ঈদ-উল আযহা’ মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব উদযাপনের দিন নির্ধারিত হলেও দিনাজপুরের বিরামপুরে সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে দুইটি জামাতে প্রায় ১৫টি গ্রামের মানুষ ঈদের নামাজ আদায় করেছেন। উভয় জামায়াতে পুরুষ মুসল্লির পাশাপাশি নারী মুসল্লিও উপস্থিত ছিলেন।

রবিবার (১৬ জুন) সকাল ৭.৩০ মিনিটে বিরামপুর উপজেলার বিনাইল ইউনিয়নের আয়ড়া মোড় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ ও জোতবানী ইউনিয়নের খয়েরবাড়ি মির্জাপুর গ্রামে ৮ টায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। দুই জামাতে কয়েকটি গ্রামের প্রায় শতাধিক নারী ও পুরুষ ঈদের নামাজ আদায় করেন। বিনাইল ইউনিয়নের আয়ড়া মোড় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে ঈদুল আজহার নামাজের ইমামতি করেন মাওলানা ইলিয়াস এবং জোতবানী ইউনিয়নের খয়েরবাড়ি মির্জাপুর মসজিদে ঈদুল আজহার নামাজের ইমামতি করেন মো. দেলোয়ার হোসেন কাজি।

সরেজমিনে আজ সকালে উপজেলার বিনাইল ইউনিয়নের আয়ড়া মোড় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে গিয়ে দেখা যায় সকাল থেকে দূর-দূরান্তের গ্রামের মুসল্লি ও তাদের পরিবারের নারী সদস্যরা একত্রিত হতে থাকেন।নির্ধারিত সময়ে ঈদুল আজহার নামাজ আদায়ের পর খোতবা পাঠের মাধ্যমে ঈদুল আজহা উদযাপন করেন। এ সময় স্থানীয় সাবেক পুলিশ সদস্য খাজের উদ্দিন,মনজেল হাজী,আবু তালেব,মাবুদ হাজী,নুরুল ইসলাম, মোঃ শাহীন ফেরদৌস মোশাররফসহ তার পরিবারের সদস্যদের পাশাপাশি নারীরাও ঈদুল আজহার নামাজ আদায় করেন। নামাজ শেষে কোরবানির পশু জবাই করেন।এসময় বিরামপুর থানা পুলিশের এ এস আই সুদান ও গ্রাম পুলিশ সদস্যগন উপস্থিত ছিলেন।

একদিন আগে ঈদ উদযাপন করার বিষয়ে জানতে চাইলে খয়ের বাড়ি মসজিদের ইমাম মো.দোলোয়ার হোসেন কাজি বলেন, সৌদি আরবের সাথে বাংলাদেশের সময়ের পার্থক্য মাত্র তিনঘন্টা।এই তিন ঘন্টার ব্যবধানে দিনের পরিবর্তন হয় না। তাই এই নামাজ আদায় করা।

তিনি বলেন,‘আল্লাহর রাসুল (স) এক সাহাবি এসে জিজ্ঞেসা করলেন “আল্লাহর রাসুল এইযে চাঁদটা ছোট হয় এবং বড় কেন হয়”। এই কথার পর আল্লাহ আয়াত নাজিল করলেন যে ‘হে নবী, আপনি বলে দিন আমি বিশ্ববাসির জন্য একটা ক্যালেন্ডার পাঠালাম’। এতে করে সেই ক্যালেন্ডারের মধ্যে বাংলাদেশও আছে।

তিনি বলেন,‘ আবার হযরত মুহাম্মদ(স) জম্মগ্রহণ করে ১২ রবিউল আওয়াল সোমবার কিন্তু যদি দিন ধরা হয় তাহলে আমাদের দেশে সেই দিনহয় মঙ্গলবার। আবার রমজানে ২৭ তারিখে আমরা ‘লাইলাতুল কদর’ রাতে ইবাদতের মাধ্যমে আল্লাহকে খুঁজি কিন্তু দিন হিসেবে আমরা একদিন পর সেই রাতকে খুঁজতেছি। একই ভাবে ৯ জিলহজ্জ আরাফার ময়দানে অবস্থান যদি হয় তাহলে আমাদের এখানে মিল হচ্ছে না। এমন বিভিন্ন চিন্তা ও হাদিসি ব্যাখ্যার কারনে সৌদি আরবের সঙ্গে মিলরেখে ঈদ উযদাপন করছি’।

বিরামপুর থানার এ এস আই সুদান বলেন, সারা দেশে আগামীকাল ঈদ উদযাপিত হবে। তবে আজ এই এলাকার বেশ কিছু মুসল্লি ঈদ উদযাপন করছেন এবং কুরবানীর পশু জবাই করবেন।এখানে যেন কোনো অপ্রীতিকার ঘটনা না ঘটে, সেই জন্য বিরামপুর থানা অফিসার ইনচার্জ সুব্রত কুমার সরকারের নির্দেশনায় বিরামপুর থানা পুলিশের পক্ষ থেকে নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

ট্যাগস :
Translate »

বিরামপুরে সৌদির সাথে মিল রেখে ১৫টি গ্রামের পরিবারে ঈদুল আজহা উদযাপন

আপডেট সময় : ০৫:১৬:৩৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪

মোঃ ইব্রাহীম মিঞা, বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: আগামীকাল সোমবার (১৭ জুন ) ‘ঈদ-উল আযহা’ মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব উদযাপনের দিন নির্ধারিত হলেও দিনাজপুরের বিরামপুরে সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে দুইটি জামাতে প্রায় ১৫টি গ্রামের মানুষ ঈদের নামাজ আদায় করেছেন। উভয় জামায়াতে পুরুষ মুসল্লির পাশাপাশি নারী মুসল্লিও উপস্থিত ছিলেন।

রবিবার (১৬ জুন) সকাল ৭.৩০ মিনিটে বিরামপুর উপজেলার বিনাইল ইউনিয়নের আয়ড়া মোড় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ ও জোতবানী ইউনিয়নের খয়েরবাড়ি মির্জাপুর গ্রামে ৮ টায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। দুই জামাতে কয়েকটি গ্রামের প্রায় শতাধিক নারী ও পুরুষ ঈদের নামাজ আদায় করেন। বিনাইল ইউনিয়নের আয়ড়া মোড় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে ঈদুল আজহার নামাজের ইমামতি করেন মাওলানা ইলিয়াস এবং জোতবানী ইউনিয়নের খয়েরবাড়ি মির্জাপুর মসজিদে ঈদুল আজহার নামাজের ইমামতি করেন মো. দেলোয়ার হোসেন কাজি।

সরেজমিনে আজ সকালে উপজেলার বিনাইল ইউনিয়নের আয়ড়া মোড় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে গিয়ে দেখা যায় সকাল থেকে দূর-দূরান্তের গ্রামের মুসল্লি ও তাদের পরিবারের নারী সদস্যরা একত্রিত হতে থাকেন।নির্ধারিত সময়ে ঈদুল আজহার নামাজ আদায়ের পর খোতবা পাঠের মাধ্যমে ঈদুল আজহা উদযাপন করেন। এ সময় স্থানীয় সাবেক পুলিশ সদস্য খাজের উদ্দিন,মনজেল হাজী,আবু তালেব,মাবুদ হাজী,নুরুল ইসলাম, মোঃ শাহীন ফেরদৌস মোশাররফসহ তার পরিবারের সদস্যদের পাশাপাশি নারীরাও ঈদুল আজহার নামাজ আদায় করেন। নামাজ শেষে কোরবানির পশু জবাই করেন।এসময় বিরামপুর থানা পুলিশের এ এস আই সুদান ও গ্রাম পুলিশ সদস্যগন উপস্থিত ছিলেন।

একদিন আগে ঈদ উদযাপন করার বিষয়ে জানতে চাইলে খয়ের বাড়ি মসজিদের ইমাম মো.দোলোয়ার হোসেন কাজি বলেন, সৌদি আরবের সাথে বাংলাদেশের সময়ের পার্থক্য মাত্র তিনঘন্টা।এই তিন ঘন্টার ব্যবধানে দিনের পরিবর্তন হয় না। তাই এই নামাজ আদায় করা।

তিনি বলেন,‘আল্লাহর রাসুল (স) এক সাহাবি এসে জিজ্ঞেসা করলেন “আল্লাহর রাসুল এইযে চাঁদটা ছোট হয় এবং বড় কেন হয়”। এই কথার পর আল্লাহ আয়াত নাজিল করলেন যে ‘হে নবী, আপনি বলে দিন আমি বিশ্ববাসির জন্য একটা ক্যালেন্ডার পাঠালাম’। এতে করে সেই ক্যালেন্ডারের মধ্যে বাংলাদেশও আছে।

তিনি বলেন,‘ আবার হযরত মুহাম্মদ(স) জম্মগ্রহণ করে ১২ রবিউল আওয়াল সোমবার কিন্তু যদি দিন ধরা হয় তাহলে আমাদের দেশে সেই দিনহয় মঙ্গলবার। আবার রমজানে ২৭ তারিখে আমরা ‘লাইলাতুল কদর’ রাতে ইবাদতের মাধ্যমে আল্লাহকে খুঁজি কিন্তু দিন হিসেবে আমরা একদিন পর সেই রাতকে খুঁজতেছি। একই ভাবে ৯ জিলহজ্জ আরাফার ময়দানে অবস্থান যদি হয় তাহলে আমাদের এখানে মিল হচ্ছে না। এমন বিভিন্ন চিন্তা ও হাদিসি ব্যাখ্যার কারনে সৌদি আরবের সঙ্গে মিলরেখে ঈদ উযদাপন করছি’।

বিরামপুর থানার এ এস আই সুদান বলেন, সারা দেশে আগামীকাল ঈদ উদযাপিত হবে। তবে আজ এই এলাকার বেশ কিছু মুসল্লি ঈদ উদযাপন করছেন এবং কুরবানীর পশু জবাই করবেন।এখানে যেন কোনো অপ্রীতিকার ঘটনা না ঘটে, সেই জন্য বিরামপুর থানা অফিসার ইনচার্জ সুব্রত কুমার সরকারের নির্দেশনায় বিরামপুর থানা পুলিশের পক্ষ থেকে নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।