ঢাকা ১২:৩৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo ময়মনসিংহে মানসিক রোগী রাজিয়া খাতুুন হত্যার রহস্য উদঘাটন ০৩ জন গ্রেফতার Logo শ্রীমঙ্গলে অর্ধশতাধিক ছিন্নমূলে ঈদ উপহার দিলো ওয়ার্ক ফর হিউম্যানিটি Logo ফাজিলপুরে হাফেজিয়া মাদ্রাসার ছাত্রদের জন্য মুসলিম এইড বাংলাদেশ (MAB) এর কুরবানি কর্মসূচী-২০২৪ Logo শুকনো জায়গার অভাবে, সিলেটে অনেকেই কোরবানী দিতে পারছেন না Logo পুলিশ পরিচয়ে ছিনতায়ের অভিযোগে সাবেক সেনা সদস্য গ্রেফতার Logo কালিয়াকৈরে ডাঃ ডালেম চন্দ্র বর্মনের স্মরণসভা অনুষ্ঠিত Logo ঈদের আনন্দে প্রবাসীরা কতটুকু হাসি খুশি থাকে Logo ঈদুল আযাহার নামাজ আদায় চকশৈল্যা বাজার ঈদগাহ মাঠে। Logo বিরামপুরে সৌদির সাথে মিল রেখে ১৫টি গ্রামের পরিবারে ঈদুল আজহা উদযাপন Logo শেরপুরে পবিত্র ঈদুল আযহার উপলক্ষে শুভেচ্ছা ও আর্থিক সহায়তা দিলেন ছানুয়ার হোসেন ছানু এমপি

সখীপুরে জমি নিয়ে বিরোধে আপন বড় ভাইকে কুপিয়েছে ছোট ভাই ও তার স্ত্রী সন্তানরা; আদালতে মামলা

খাঁন আহম্মেদ হৃদয় পাশা,বিশেষ প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৫:৩২:৩৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৩ মার্চ ২০২৪ ২১৫ বার পড়া হয়েছে

খাঁন আহম্মেদ হৃদয় পাশা,বিশেষ প্রতিনিধি:

টাঙ্গাইলের সখীপুরে পৈত্রিক জমিজমা নিয়ে বিরোধের জের ধরে আপন বড় ভাই আবদুল বাছেদকে (৫৫) দা দিয়ে কুপিয়েছে ও শাবল দিয়ে পিটিয়েছে ছোট ভাই ও তার স্ত্রী সন্তানরা। গত ৩ মার্চ বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে উপজেলার কাকড়জান ইউনিয়নের হেঙ্গারচালা বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
জানা যায়, উপজেলার কাকড়জান ইউনিয়নের হেঙ্গারচালা গ্রামের মৃত আক্কেল আলীর বড় ছেলে আবদুল বাছেদ ও তার ভাইদের মাঝে পৈত্রিক জমিজমা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই বিরোধ চলে আসছে। ঘটনার দিন আবদুল বাছেদ তার পৈত্রিক জমিতে গাছ লাগাতে গেলে ছোট ভাই আবদুল হামিদ, তার স্ত্রী ও সন্তানদের নিয়ে অতর্কিত তার উপর হামলা চালায়। এ সময় তারা আবদুল বাছেদকে দা দিয়ে কুপিয়ে ও লোহার শাবল দিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় ফেলে যায় । তার আত্মচিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে তাকে মূমুর্ষূ অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। কর্তব্যরত চিকিৎসক তার অবস্থার অবনতি দেখে টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন। হামলায় তার মাথায় ৬টি শেলাই করা হয়েছে এবং ডান হাতের কবজি ভেঙে যাওয়ায় প্লাস্টার করা হয়েছে। মাথাসহ সারা শরীরের আঘাতের ফলে তিনি আর উঠতে বসতে পারছেন না অচেতন অবস্থায় এখন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন।
এ ঘটনায় গত ৭ মার্চ আবদুল বাছেদের ছেলে মোঃ নাছির উদ্দিন বাদী হয়ে চাচা আবদুল হামিদ (৪৮) ও স্ত্রী শেফালী বেগম (৪০), তার ছেলে আল আমীন (২৩) এবং মেয়ে হামিদা বেগমকে (২৬) আসামী করে টাঙ্গাইল সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সখিপুর আদালতে ( সি আর ১৯৮) মামলা করেন। মামলায় আসামীদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী হলেও আসামীদের ধরছেন না পুলিশ এমনটি অভিযোগ ভূক্তভোগী পরিবারে।
মামলার বাদী আবদুল বাছেদের ছেলে মোঃ নাছির উদ্দিন তার বাবাার উপর হামলাকারীদের অভিলম্বে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।
এ ব্যাপারে সখীপুর থানার ওসি শেখ শাহীনুর আলম বলেন, আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

ট্যাগস :
Translate »

সখীপুরে জমি নিয়ে বিরোধে আপন বড় ভাইকে কুপিয়েছে ছোট ভাই ও তার স্ত্রী সন্তানরা; আদালতে মামলা

আপডেট সময় : ০৫:৩২:৩৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৩ মার্চ ২০২৪

খাঁন আহম্মেদ হৃদয় পাশা,বিশেষ প্রতিনিধি:

টাঙ্গাইলের সখীপুরে পৈত্রিক জমিজমা নিয়ে বিরোধের জের ধরে আপন বড় ভাই আবদুল বাছেদকে (৫৫) দা দিয়ে কুপিয়েছে ও শাবল দিয়ে পিটিয়েছে ছোট ভাই ও তার স্ত্রী সন্তানরা। গত ৩ মার্চ বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে উপজেলার কাকড়জান ইউনিয়নের হেঙ্গারচালা বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
জানা যায়, উপজেলার কাকড়জান ইউনিয়নের হেঙ্গারচালা গ্রামের মৃত আক্কেল আলীর বড় ছেলে আবদুল বাছেদ ও তার ভাইদের মাঝে পৈত্রিক জমিজমা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই বিরোধ চলে আসছে। ঘটনার দিন আবদুল বাছেদ তার পৈত্রিক জমিতে গাছ লাগাতে গেলে ছোট ভাই আবদুল হামিদ, তার স্ত্রী ও সন্তানদের নিয়ে অতর্কিত তার উপর হামলা চালায়। এ সময় তারা আবদুল বাছেদকে দা দিয়ে কুপিয়ে ও লোহার শাবল দিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় ফেলে যায় । তার আত্মচিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে তাকে মূমুর্ষূ অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। কর্তব্যরত চিকিৎসক তার অবস্থার অবনতি দেখে টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন। হামলায় তার মাথায় ৬টি শেলাই করা হয়েছে এবং ডান হাতের কবজি ভেঙে যাওয়ায় প্লাস্টার করা হয়েছে। মাথাসহ সারা শরীরের আঘাতের ফলে তিনি আর উঠতে বসতে পারছেন না অচেতন অবস্থায় এখন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন।
এ ঘটনায় গত ৭ মার্চ আবদুল বাছেদের ছেলে মোঃ নাছির উদ্দিন বাদী হয়ে চাচা আবদুল হামিদ (৪৮) ও স্ত্রী শেফালী বেগম (৪০), তার ছেলে আল আমীন (২৩) এবং মেয়ে হামিদা বেগমকে (২৬) আসামী করে টাঙ্গাইল সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সখিপুর আদালতে ( সি আর ১৯৮) মামলা করেন। মামলায় আসামীদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী হলেও আসামীদের ধরছেন না পুলিশ এমনটি অভিযোগ ভূক্তভোগী পরিবারে।
মামলার বাদী আবদুল বাছেদের ছেলে মোঃ নাছির উদ্দিন তার বাবাার উপর হামলাকারীদের অভিলম্বে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।
এ ব্যাপারে সখীপুর থানার ওসি শেখ শাহীনুর আলম বলেন, আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।